ঢাকা বৃহস্পতিবার, এপ্রিল ২, ২০২০

নলছিটিতে চায়ের দোকানে আড্ডা না দেওয়ার অনুরোধ


|| প্রকাশিত: 7:13 pm , March 21, 2020

বার্তা পরিবেশক, বরিশাল: করোনা ভাইরাস সংক্রমণ (কোভিড-১৯) পরিস্থিতির জন্য ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলায় বাসিন্দাদের আগামী ৩১ মার্চ পর্যন্ত প্রয়োজন ছাড়া চায়ের দোকান-খাবার হোটেলে আড্ডা না দেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে উপজেলা প্রশাসন।

শনিবার (২১ মার্চ) উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুম্পা সিকদারের স্বাক্ষরিত এক জরুরি ঘোষণাপত্রে অযথা আড্ডা বন্ধের অনুরোধের পাশাপাশি শিশু কিশোরদের নিজ বাসা হতে বের হতে না দেওয়া, গুজবে কান না দেওয়া, খাদ্যদ্রব্য ও নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্য না বাড়ানো, ওয়াজ মাহফিলসহ সব ধরনের ধর্মীয়, সামাজিক, রাজনৈতিক সাংস্কৃতিক সভা সমাবেশ বন্ধ রাখার জন্য বলা হয়েছে। এ আদেশ অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করার কথাও জরুরি ঘোষণাপত্রে উল্লেখ করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুম্পা সিকদার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, করোনা ভাইরাস নিয়ে জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলীর নির্দেশে সরকারের নির্দেশনা বাস্তবায়ন ও নাগরিকদের সচেতন করার লক্ষ্যে উপজেলা প্রশাসন কাজ করছে। এরইমধ্যে নলছিটি পৌর এলাকায় ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতামূলক মাইকিং করা হচ্ছে। এর বাইরে প্রবাসীদের হোম কোয়ারেন্টিনে নেওয়া ও বাজার মনিটরিং কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

এদিকে করোনা ভাইরাসের ঝুঁকি রোধে করনীয় বিষয়ে সচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে ঝালকাঠি জেলা জুড়ে বিভিন্নভাবে প্রচার প্রচারণা চালানো হচ্ছে।

এর মধ্যে জেলা তথ্য অফিসের উদ্যোগে জেলার চারটি উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ স্থানে ছয়টি ডিসপ্লে বোর্ড লাগানো হয়েছে। পাশাপাশি করোনা ভাইরাস নিয়ে সচেতনতা ও নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য না বাড়ানো এবং প্রয়োজনের অতিরিক্ত পণ্য না কেনা, মজুদ না করার জন্য সবাইকে অনুরোধ জানিয়ে প্রচার-প্রচারণা করা হচ্ছে।

এছাড়া করোনা ভাইরাসের সংক্রমন রোধে সরকারের বিভিন্ন নির্দেশনা ও সচেতনতামূলক পরামর্শ জেলা-উপজেলা প্রশাসন ও জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে ঝালকাঠি সদরসহ চারটি উপজেলায় মাইকের মাধ্যমে প্রচার করা হচ্ছে। একইসঙ্গে ইউনিয়ন পর্যায়ে জনপ্রতিনিধিরা মাইকে প্রচারনা চালাচ্ছেন।

এদিকে চাল-পেঁয়াজসহ বেশি দামে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য বিক্রির দায়ে ঝালকাঠিতে অভিযান অব্যাহত রেখেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাশাপাশি বিনোদন কেন্দ্রগুলোতেও জনসমাগম রোধে চালানো হচ্ছে অভিযান। অপরদিকে হোম কোয়ারেন্টিনে না থাকায় ছয় প্রবাসীকে ৪৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। জনস্বার্থে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন জেলা প্রশাসক মো. জোহর আলী।

এই বিভাগের আরও খবর
সর্বশেষ