ঢাকা সোমবার, মে ২৫, ২০২০

শ্রমিকদের সতর্ক করলেন প্রতিমন্ত্রী


|| প্রকাশিত: 1:33 am , November 15, 2018

পিনিউজ ডেস্ক: তৈরি পোশাক শিল্পের নতুন বেতন কাঠামো নিয়ে স্বার্থান্বেষী মহলের উসকানির ফাঁদে পা না দিতে শ্রমিকদের সতর্ক করেছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মজিবুল হক চুন্নু।

বুধবার রাজধানীর বিজিএমইএ ভবনে তৈরি পোশাকশিল্প খাতে কর্মরত অসুস্থ শ্রমিকদের চিকিৎসার জন্য আর্থিক সহায়তা ও শ্রমিকদের মেধাবী সন্তানদের শিক্ষাবৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।

অনুষ্ঠানে ৫৭ অসুস্থ শ্রমিক ও ৭৭ শিক্ষার্থীসহ মোট ১৩৪ জনকে বিভিন্ন অঙ্কের নগদ অর্থের চেক প্রদান করা হয়।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘পোশাক খাতের ব্যবসা আরও ভালো হলে ভবিষ্যতে শ্রমিদের বেতন বাড়ানো হবে। তবে এ খাতকে টিকিয়ে রাখতে হলে বেতন নিয়ে কোনো ধরনের উসকানির ফাঁদে পা দেয়া যাবে না।’

তিনি বলেন, ‘শ্রমিকের বেতন বাড়ালেও বিদেশি ক্রেতারা কিন্তু আমাদের পণ্যের দাম বাড়াচ্ছে না। বরং গত কয়েক বছরে ২ থেকে ৩ শতাংশ কমিয়েছে। এ বিষয়টি বিবেচনা করে মালিক শ্রমিক দুই পক্ষকেই বাঁচিয়ে রাখতে হবে।’

মজিবুল হক বলেন, ‘পোশাক শিল্প থেকে রফতানি আয়ের একটি অংশ শ্রমিক কল্যাণ তহবিলে যোগ হচ্ছে৷ বর্তমানে এ ফান্ডে ১২৩ কোটি টাকা আছে। এর মধ্যে শ্রমিকদের জন্য থাকা ৬১ কোটি টাকা ব্যাংকে এফডিআর করে রাখা হয়েছে। সেই টাকার মুনাফা থেকে আজকে অসুস্থ শ্রমিক ও শ্রমিক পরিবারের মেধাবী শিক্ষার্থীদের অর্থ সাহায্য প্রদান করা হয়েছে।’

এ সময় বাংলাদেশ তৈরি পোশাক শিল্প মালিকদের শীর্ষ সংগঠন (বিজিএমইএ) সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বলেন, ‘সক্ষমতা না থাকা সত্ত্বেও আমরা ৮ হাজার টকা বেতন দিতে রাজি হয়েছি। অথচ মালিকরা সর্বোচ্চ ৭ হাজার টাকা বেতন দিতে সক্ষম। আমরা আপনাদের শ্রমিক মনে করি না, আপনারা আমাদের অংশীজন। আগামী জানুয়ারিতে নতুন বেতন কার্যকর হবে।’ এ ক্ষেত্রে সবার সহোগিতা চান তিনি।
একই সঙ্গে বেতন বাড়ানোয় বাসা ভাড়া যাতে না বাড়ে সেই বিষয়ে সংশ্লিষ্টদের ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান বিজিএমইএ সভাপতি।

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিকেএমইএ সভাপতি এ কে এম সেলিম ওসমান, শ্রম ও কর্মসংস্থান সচিব আফরোজা খান ও আনিসুল আউয়াল প্রমুখ।

এই বিভাগের আরও খবর
সর্বশেষ