ঢাকা রবিবার, সেপ্টেম্বর ২০, ২০২০

‘খালেদা জিয়াকে জেলে মেরে ফেলার ইচ্ছা শেখ হাসিনার নেই‘


|| প্রকাশিত: 2:00 am , February 14, 2020

পিনিউজ২৪ ডেস্ক: আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে যতটা না ভাবছে, তার চেয়ে বেশি রাজনীতি করছে। খালেদা জিয়ার মামলাটি দুর্নীতির। এ মামলায় তাকে মুক্তি দেয়ার এখতিয়ার আছে একমাত্র আদালতের।

বৃহস্পতিবার গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্যের জবাবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, তিনি (মির্জা ফখরুল) বলেছেন সরকার জেলের মধ্যে খালেদা জিয়াকে মেরে ফেলতে চায় কষ্ট দিয়ে, সে ধরনের ইচ্ছা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেই। আমরা এই প্রতিহিংসার রাজনীতি করি না। বেগম জিয়াকে জেলের মধ্যে মেরে ফেলব- এ রাজনীতি বঙ্গবন্ধু করে নাই, শেখ হাসিনাও করে না।

খালেদা জিয়ার অসুস্থতা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বেগম জিয়ার স্বাস্থ্য সম্পর্কে দলের লোকেরা বলে একটা আর চিকিৎসকেরা বলেন আরেকটা। চিকিৎসকেরা বলেন তার স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রণে আছে। আর দলের লোকেরা তাকে অসুস্থ থেকে আরও বেশি অসুস্থ বানিয়ে যতটা না চিকিৎসার জন্য ভাবছে, তার চেয়ে বেশি রাজনীতি করছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়াকে কি আওয়ামী লীগ জেলে নিয়েছে? তাকে কি শেখ হাসিনা জেলে নিয়েছেন? তাকে জেলে নিয়েছে আদালত। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মামলায় তিনি বিচারাধীন আছেন। তার মামলাটি রাজনৈতিক মামলা নয়, দুর্নীতির মামলা।

তিনি বলেন, রাজনৈতিক মামলা হলে সরকার তার মুক্তি নিয়ে বিবেচনা করতে পারতো। দুর্নীতি মামলায় তাকে মুক্তি দেয়ার একমাত্র এখতিয়ার রয়েছে আদালতের।

টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ইলিয়াস হোসেনের সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদ চত্বরে আয়োজিত এ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য কাজী আকরাম উদ্দিন আহম্মদ, ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আবদুল্লাহ, শেখ হেলাল উদ্দিন (এমপি), আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, শেখ সালাউদ্দিন জুয়েল এমপি, মির্জা আযম এমপি, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এমদাদুল হক চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব আলী খান বক্তব্য দেন।

বেলা ১১টায় আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক কেন্দ্রীয় আওয়ামী নেতৃবৃন্দসহ বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। এরপর তিনি ফাতেহাপাঠ ও বঙ্গবন্ধুর আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত করেন। পরে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আগামী তিন বছরের জন্য টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ আবুল বাশার খায়ের ও সাধারণ সম্পাদক শেখ বাবুল হোসেন এবং টুঙ্গিপাড়া পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ সাইফুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক বিএম ফোরকান আলীর নাম ঘোষণা করেন।

এই বিভাগের আরও খবর
সর্বশেষ