ঢাকা রবিবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২০

আকাশেতে লক্ষ তারা, চাঁদ কিন্তু একটা রে


|| প্রকাশিত: 5:56 pm , September 10, 2020

পিনিউজ২৪ ডেস্ক: ‘লাক্স আনন্দ বিচিত্রা’ সুন্দরী প্রতিযোগীতা দিয়ে ১৯৯৫ সালে শোবিজে পা রাখেন পপি। এরপর ’৯৭ সালে ‘আমার ঘর আমার বেহেস্ত’ সিনেমা দিয়ে নাম লেখান চলচ্চিত্রে। এটি প্রথম অভিনীত সিনেমা হলেও প্রথম মুক্তি পায় ‘কুলি’ সিনেমাটি। ওমর সানীর বিপরীতে নায়িকা হিসেবে হাজির হয়ে মুক্তি পাওয়া প্রথম সিনেমাতে বাজিমাত করেন এই নায়িকা। ছবিটি ব্যবসাসফল হয়। এরপর একের পর এক ছবিতে তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। দীর্ঘ ক্যারিয়ারে কাজ করেছেন প্রায় ২৫০টিরও বেশি সিনেমাতে। নায়ক ওমর সানী থেকে শুরু করে ইলিয়াস কাঞ্চন, মান্না, রুবেল, বাপ্পারাজ, শাকিল খান, অমিত হাসান, আমিন খান, রিয়াজ, ফেরদৌস ও শাকিব খানের সঙ্গেও জুটি বেঁধে কাজ করেছেন।

এত নায়কের ভীড়ে শাকিল খান, মান্না, ফেরদৌস, রুবেলের সঙ্গে জুটিগুলো বেশ সফল ও জনপ্রিয়তা পেয়েছে বেশ। অনেকটা সময় পেরিয়ে গেলেও এখনও চলচ্চিত্রেই রয়েছেন তিনি, হারিয়ে যাননি। সেইসময়ে রূপে-গুণে যেরকমটা মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন; আজও যেন তাই।

আজ বৃহস্পতিবার দাপুটে এই নায়িকার জন্মদিন। ঘড়ির কাঁটা ১২টা ছোঁয়ার আগে থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভক্ত অনুরাগী, সহকর্মীদের শুভেচ্ছা ও ভালোবাসায় সিক্ত হচ্ছেন এই নায়িকা। তিনিও সাদরে গ্রহণ করছেন সবার ভালোবাসা। তবে এবারের জন্মদিনে পপির রয়েছে ভিন্ন পরিকল্পনা।

তিনি জানিয়েছেন, এবারের জন্মদিনে কোনো আয়োজন না করে বাজেটের অর্থ করোনায় বিপর্যস্ত গরিব, দুঃখীদের মাঝে বিলিয়ে দেবেন।

জন্মদিনের আয়োজন প্রসঙ্গে পপি বলেন, এবারে মহামারীর মধ্যে জন্মদিন নিয়ে বিশেষ কোনো আয়োজন নেই। জন্মদিনে নানা আয়োজনের যে বাজেট বা খরচ হয় প্রতিবার, সেটি এবার তিনটে ভাগে বিলিয়ে দেব। প্রতিবন্ধী শিশু, বন্যাকবলিত অসহায় মানুষ ও করোনাতে দুর্দিনের মুখোমুখি এমন কিছু মানুষকে সাহায্য করব। এই টাকাটা হয়তো তাদের উপকারে আসবে। কোনো অনুষ্ঠান না করলেও মিলাদের আয়োজন রেখেছি।

ঢাকাই সিনেমায় পপি যেন একটা অধ্যায়। তাকে ছাড়া সিনেমার ইতিহাস কল্পনাই করা যায়না। তার দীর্ঘ ক্যারিয়ারে উপহার দিয়েছেন অসংখ্য ব্যবসাসফল সিনেমা। পপি অভিনীত বহু সিনেমার গান আজও দর্শকরা গুনগুন করে গেয়ে থাকেন। ‘কুলি’ সিনেমার ‘আকাশেতে লক্ষ তারা, চাঁদ কিন্তু একটা রে’ শিরোনামের এই গানটিই যথেষ্ঠ একজন পপিকে মনে রাখার জন্য। এন্ড্রু কিশোর ও রিজিয়া পারভীনের গাওয়া এই গান আজও ভক্তদের মনে দোলা দেয়।

১৯৭৯ সালের ১০ সেপ্টেম্বর খুলনায় জন্মগ্রহণ করেন ঢাকাই সিনেমার অন্যতম আবেদনময়ী এই নায়িকা। তার পুরো নাম সাদিকা পারভীন পপি। তার শৈশব কাটে খুলনায় দাদাবাড়িতে। ছয় ভাইবোনের মধ্যে পপি বড়। তিনি পড়াশুনা করেছেন খুলনার মুন্নুজান উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ে।

চলচ্চিত্রে অভিনয়ের পাশাপাশি তিনি টেলিভিশনের নাটকে ও টেলিফিল্মে অভিনয় করেছেন। কাজ করেছেন বিজ্ঞাপনেও। বিজ্ঞাপনেও মুগ্ধতা ছড়িয়েছেন তিনি। ‘সাজিয়ে তোলো ঘরের প্রতিটি দেয়াল, উজ্জ্বল সিল্কি মসৃণতায়’ বার্জার পেইন্টসের এই সংলাপটি দর্শক মনে এক অন্যরকম আমেজ তৈরি করতো।

পপি অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবির মধ্যে রয়েছে আমার ঘর আমার বেহেস্ত, কুলি, আমার বৌ, বিদ্রোহ চারিদিকে, অগ্নিসাক্ষী, দুজন দুজনার, জানের জান, ক্ষ্যাপা বাসু, বিশ্ব বাটপার, লাল বাদশা, মা যখন বিচারক, প্রাণের প্রিয়তমা, ভালোবাসার ঘর, তোমার জন্য ভালোবাসা, মনের মিলন, এই মন তোমাকে দিলাম, শ্রেষ্ঠ সন্তান, সিটি টেরর, বস্তির রাণী সুরিয়া, জমজ, ক্ষমতার দাপট, কারাগার, বিদ্রোহী পদ্মা, রাণী কুঠির বাকি ইতিহাস, কি জাদু করিলা, মেঘের কোলে রোদ, গঙ্গাযাত্রা, গার্মেন্টস কন্যা, দরিয়া পাড়ের দৌলতী, ওপারে আকাশ, চার অক্ষরের ভালোবাসা, পৌষ মাসের পিরিতি।

এই অভিনেত্রী এ পর্যন্ত মেঘের কোলে রোদ, কি যাদু করিলা, গঙ্গাযাত্রা ছায়াছবিতে অভিনয়ের করে শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী হিসেবে তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুস্কাররে ভূষিত হয়েছেন। সূত্র: বাংলাদেশ জার্নাল