ঢাকা সোমবার, নভেম্বর ৩০, ২০২০

দেড় বছরের মেয়ের গলায় ছুরি ধরে গৃহবধূকে ধর্ষণ


|| প্রকাশিত: 8:28 pm , October 28, 2020

প্রতীকি ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক: বরিশালের উজিরপুর উপজেলার পশ্চিম শোলক গ্রামে দেড় বছরের মেয়ের গলায় ছুরি ধরে এক গৃহবধূকে (২৫) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। বুধবার (২৮ অক্টোবর) দুপুরে ওই গৃহবধূকে মেডিকেল পরীক্ষার জন্য বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) রাতে নির্যাতনের শিকার ওই গৃহবধূর স্বামী বাদী হয়ে উজিরপুর থানায় মামলা করেন।

মামলায় উপজেলার পশ্চিম শোলক গ্রামের রাজ্জাক সরদারের ছেলে লিটন সরদারকে (৪২) আসামি করা হয়েছে। তিনি সম্পর্কে ওই গৃহবধূর মামাতো ভাসুর হন।

অন্যদিকে ওই গৃহবধূর স্বামী ঢাকায় অটো চালান। পশ্চিম শোলক গ্রামের বাড়িতে তার স্ত্রী দুই সন্তান নিয়ে বসবাস করেন।

উজিরপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জিয়াউল আহসান মামলার বরাত দিয়ে জানান, ওই গৃহবধূর স্বামী ঢাকায় অটো চালান। বাড়িতে দুই সন্তান নিয়ে থাকেন ওই গৃহবধূ। সেই সুযোগে প্রতিবেশী লিটন সরদার দীর্ঘদিন ধরে তাকে অনৈতিক প্রস্তাব ও উত্ত্যক্ত করে আসছিলেন। বিষয়টি কিছু দিন আগে ওই গৃহবধূ তার স্বামীকে জানান। তিনি মুঠোফোনে লিটন সরদারকে তার স্ত্রীকে বিরক্ত করতে নিষেধ করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন লিটন সরদার। লিটন প্রতিশোধ নিতে সুযোগ খুঁজতে থাকেন।

গত ২২ অক্টোবর রাত ১১টার দিকে দেড় বছরের মেয়েকে নিয়ে প্রকৃতির ডাকে সাড়া দিতে ঘরের বাইরে যান ওই গৃহবধূ। এ সময় লিটন ঘরে ঢুকে লুকিয়ে থাকেন। ঘরে ফিরে লাইট বন্ধ করে বিছানায় গেলে ওই গৃহবধূর মুখ চেপে ধরে ধর্ষণের চেষ্টা করেন লিটন। এতে বাধা দিলে লিটন তার দেড় বছরের মেয়ের গলায় ছুরি ঠেকিয়ে তাকে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনা কেউকে জানালে মেয়েকে হত্যার হুমকি দিয়ে লিটন সরদার চলে যান। তিনদিন আগে বিষয়টি মুঠোফোনে গৃহবধূ তার স্বামীকে জানান। এরপর তার স্বামী বাড়িতে আসেন এবং মঙ্গলবার রাতে থানায় মামলা করেন।

ওসি জিয়াউল আহসান বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর লিটন সরদারকে ধরতে ওই এলাকায় অভিযান চালানো হয়েছে। তবে মামলার খবর পেয়ে তিনি আত্মগোপন করেছেন। তাকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। পাশাপাশি আদালতে জবানবন্দি ও ধর্ষণ সংক্রান্ত মেডিকেল পরীক্ষার জন্য ওই গৃহবধূকে বরিশালে পাঠানো হয়েছে।

এই বিভাগের আরও খবর
সর্বশেষ