ঢাকা বুধবার, মার্চ ৩, ২০২১

সৌরভের বুকে সফলভাবে বসানো হলো ২ রিং


|| প্রকাশিত: 12:12 am , January 29, 2021

পিনিউজ২৪ ডেস্ক: কয়েকদিনের ব্যবধানে দ্বিতীয়বার বুকে ব্যথা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া সাবেক ভারতীয় অধিনায়ক ও বিসিসিআই (ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড) প্রেসিডেন্ট সৌরভ গাঙ্গুলীর বুকে দু’টি রিং বসানো হয়েছে।

দেবী শেঠি, অশ্বিন মেহাতা, আফতাব খান, সপ্তর্ষি বসু এবং সরোজ মন্ডলের সহযোগিতায় অ্যাপোলো হাসপাতালে রিং দু’টি বসানো হয় সৌরভের।

বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের এ তথ্য জানানো হয়।

অ্যাপোলো হাসপাতালে পাঁচ ডাক্তার সৌরভ গাঙ্গুলীর হৃদযন্ত্রের ধমনিতে দুটি রিং বসান। তিনি ভালো আছেন বলেও জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

সৌরভ গাঙ্গুলীকে দেখে হাসপাতাল থেকে বের হয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, সৌরভ ভালো আছে। এটা আমাদের কাছে খুশির খবর। তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরুক এটাই আমরা চাই।

এর আগে দেবী শেঠির তত্ত্বাবধানে বিকেল ৩টা নাগাদ সৌরভের এনজিওগ্রাম হয়। সেখানেই ঠিক করা হয় দু’টি বসানোর বিষয়টি। পৌনে পাঁচটার মধ্যে তার শরীরে বসানো হয় রিং। তবে বাংলার মহারাজা এখন ভালো আছেন।

এর আগে দুপুর ২টায় কলকাতায় আসেন চিকিৎসক অশ্বিন মেহাতা। তিনি মুম্বাইয়ের রিলায়েন্স ফাউন্ডেশনের লীলাবতী হাসপাতাল, ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালের সঙ্গে যুক্ত এবং যশ লোক হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগের অধিকর্তা।

তার আগে সৌরভের পরিবারের অনুরোধে বেঙ্গালুরু থেকে দুপুর ১২টা নাগাদ হাসপাতালে আসেন ভারতের প্রখ্যাত চিকিৎসক ডা. দেবী শেঠি।

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) হাসপাতালে রাতে ভালো ঘুম হয়েছে দাদার। তাকে দেখতে এদিন সকালেই হাসপাতালে পৌঁছান স্ত্রী ডোনা গাঙ্গুলী এবং কন্যা সানা।

মঙ্গলবার রাতে নিজের বাড়িতে ভালো ঘুম হয়নি সৌরভের। বুকে মৃদু ব্যথা ও সামান্য শ্বাসকষ্ট বোধ করছিলেন তিনি বুধবার সকালেও। তারপরেই ব্যক্তিগত চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনা করেন সৌরভ। তিনিই হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

ওইদিন সকালে বেহালার বাড়ি থেকে অ্যাপোলো হাসপাতাল পর্যন্ত প্রায় ১৫ কিলোমিটার পথ কলকাতা পুলিশের সহযোগিতায় গ্রিন করিডর করে সৌরভকে আনা হয়। রাতেই ইকোকার্ডিওগ্রাম, ইসিজি করা হয়। সেই রিপোর্টেও কিছু অসঙ্গতি লক্ষ্য করা যায়।

এরপরই দেবী শেঠি, অশ্বিন মেহাতা, আফতাব খান, সপ্তর্ষি বসু এবং সরোজ মন্ডলের তত্ত্বাবধানে এনজিওগ্রাম করা হয় সৌরভের।

গত ২ জানুয়ারি সৌরভ য় বুকে ব্যথা নিয়ে দক্ষিণ কলকাতার উডল্যান্ডস হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। পাঁচদিন হাসপাতালে থাকার পর ৭ জানুয়ারি ডিসচার্জ করে দেওয়া হয় তাকে।

এই বিভাগের আরও খবর
সর্বশেষ